ভালো থাকুন হাত ধুতে আপনি কতটা সচেতন?

0
30
খাবার প্রস্তুত বা পরিবেশনের আগেটার্ম মুছে ফেলুন: খাবার সময় খাবার সময়টার্ম মুছে ফেলুন: টয়লেট ব্যবহারের পর টয়লেট ব্যবহারের পরটার্ম মুছে ফেলুন: শিশুদের ডায়াপার পরিবর্তনের পর শিশুদের ডায়াপার পরিবর্তনের পরটার্ম মুছে ফেলুন: অসুস্থ ব্যক্তিকে সেবা দেওয়ার পর অসুস্থ ব্যক্তিকে সেবা দেওয়ার পরটার্ম মুছে ফেলুন: বাড়ির ময়লা-আবর্জনা ফেলা বাড়ির ময়লা-আবর্জনা ফেলাটার্ম মুছে ফেলুন: নাক ঝাড়া নাক ঝাড়াটার্ম মুছে ফেলুন: হাঁচি-কাশির পর হাঁচি-কাশির পরটার্ম মুছে ফেলুন: বাইরে থেকে ফিরে এসে বাইরে থেকে ফিরে এসেটার্ম মুছে ফেলুন: পশুপাখি ধরা পশুপাখি ধরাটার্ম মুছে ফেলুন: যানবাহনে হাত লাগার পর যানবাহনে হাত লাগার পরটার্ম মুছে ফেলুন: আঙুলের ফাঁক আঙুলের ফাঁক
হাত ধুতে আপনি কতটা সচেতন

সবাই যদি ঠিকমতো হাত পরিষ্কার করত, তাহলে সংক্রমণের সংখ্যা অর্ধেকই কমে যেত। এ তথ্য বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার। সংক্রামক ব্যাধির আক্রমণ কমিয়ে আনতে পরিচ্ছন্নতাবিষয়ক সচেতনতা সবচেয়ে জরুরি। ঠিক সময়ে ঠিক উপায়ে হাত ধোয়া এই সচেতনতার একটা বড় উপাদান।

পরিবারের সুস্থতা নিশ্চিত করতে তাই কখন কীভাবে হাত পরিষ্কার করবেন জেনে নিন। এ বিষয়ে পরিবারের ছোটদেরও সচেতন করুন, ওদেরও শেখান। শেখান আপনার পরিবারের গৃহকর্মীকে, আশপাশের মানুষদেরও। প্রয়োজনে বাইরে রেস্তোরাঁয়, খাবার দোকানেও এ নিয়ে কথা বলুন।

কখন অবশ্যই হাত ধুতে হবে

– খাবার প্রস্তুত বা পরিবেশনের আগে l

– খাবার সময়, তা চামচ দিয়ে খেলেও l

– টয়লেট ব্যবহারের পর ও শিশুদের ডায়াপার পরিবর্তনের পর l

– পশুপাখি ধরা বা আদর করা বা খাওয়ানোর পর l

– নাক ঝাড়া, হাঁচি-কাশির পর l

– বাড়ির ময়লা-আবর্জনা ফেলা, ঘর পরিষ্কার করা, বাগানে বা খেতে কাজ করা বা মাটি লাগে এমন যেকোনো কাজের পর l

– বাইরে থেকে ফিরে এসে, সিঁড়ির রেলিং, দরজার হাতল বা যানবাহনে হাত লাগার পর l

– অসুস্থ ব্যক্তিকে সেবা দেওয়ার পর l

– অন্যের সঙ্গে হাত মেলানোর পর l

কীভাবে হাত ধুবেন

হাত ভালো করে ধোয়ার জন্য একটি সাবানই যথেষ্ট। কলের পানির নিচে হাত রেখে প্রথমে ভালো করে ভিজিয়ে নিন। তারপর গোটা হাতে সাবান লাগান। এবার ২০ সেকেন্ড ধরে হাতের তালু, আঙুল, আঙুলের ফাঁক, নখের নিচ এমনকি কবজি পর্যন্ত ঘষে ঘষে পরিষ্কার করুন। তারপর পানির ধারায় সবটুকু সাবান ধুয়ে নিন। নোংরা তোয়ালে বা কাপড়ে হাত মুছবেন না।

ডা. আ ফ ম হেলাল উদ্দিন                                                                                                        প্রথম আলো , ২২ জুলাই ২০১৮

LEAVE A REPLY